নারীদের প্রতি খোলা চিঠি(পর্ব ১)-আলী হাসান তয়ৈব

প্রিয় বোন, বিশ্বাস কর তোমার সমালোচনা করা আমার অভিপ্রায় নয়। তোমাকে মন্দ ঠাওরানোতেও কোনো লাভ নেই আমার। র্ধম র্চচা কর বা না কর, র্পদা মেনে চল বা না চল এমনকি আমাকে ভালো জ্ঞান কর বা মন্দ তুমিও আমার বোন। গোড়ায় আমাদের বাবা-মা অভিন্ন। যে দেশে বা যে র্ধমরেই হও না কেন আদি পিতা মাতার এ সর্ম্পক নস্যাৎ করে সাধ্য কার ? প্লিজ, আমার কথাগুলোর ওপর একবার চোখ বুলাও। একটুখানি ভেবে দেখ খোলা মনে।

তুমি ভাবছো, পৃথিবী আজ অনকে দূর এগিয়ে গেছে। সাফল্য ও সমৃদ্ধির শীর্ষ চূড়ায় উপনীত হয়েছে। ধুলির ধরা ছাড়িয়ে মানুষ এখন পৌঁছে গেছে নানা গ্রহ-উপগ্রহে। সারা বিশ্ব এখন আমাদের হাতের মুঠোয়। সুতরাং এখন র্পদা করা মানে মধ্যযুগে ফিরে যাওয়া। র্পদা করা মানে নিজেকে বঞ্চিত করা। আমাদরে মুক্তি নারী স্বাধীনতায়। মুক্তি ইসলাম উপক্ষোয়।

ইতিহাস পড়ে দেখ, ইসলামই র্সবপ্রথম নারীকে মুক্তি দিয়েছে। নারীকে ভোগের পণ্য হতে দেয়নি শান্তির র্ধম ইসলাম। একমাত্র ইসলামই কন্যা সন্তান প্রতিপালনের পুরস্কার ঘোষণা করেছে জান্নাত। ইসলামই পুরুষের চারত্রিকি শুচিতা যাচাইয়ে স্ত্রীর সাফাইয়রে কথা বলেছে। ইসলামে কোনো সুযোগ রাখা হয় নি মাকে বৃদ্ধাশ্রমে রেখে বউ নিয়ে সুখে থাকার অথবা জন্মের পর থেকে নিয়ে মৃত্যু র্পযন্ত কোনো র্পবে মাকে অবমূল্যায়ন করার। স্ত্রী, কন্যা ও মাতা নারী জীবন তো এর বাইরে নয়। এ ক্ষেত্রত্রয়ের কোনোটিতেই ইসলা্মের চেয়ে বেশি দিতে পা্রেনি কোনো র্ধম বা কোনো জাতি।

আমার ভার্সিটি পড়ুয়া বোন, তুমি পাশ্চাত্যের মেকি স্বাধীনতায় প্রবঞ্চিত হয়ো না। স্যাটেলাইট চ্যালনেগুলোর হৃদয়কাড়া চিত্র দেখে ধোঁকায় পড়ো না। নাটক-সিনেমা আর ইউরোপ-আমেরিকার সুখের ছবি দেখে নিজেকে হতভাগী ভবেো না। পশ্চিমা সমাজের একটু ভেতরের খবর নিলেই জানতে পারবে বাস্তব অবস্থা।

যারা নিয়মিত খবররে কাগজ পড়নে তাদের জিজ্ঞেস করে দেখ- প্রায়ই পত্রিকায় সংবাদ আসছে পশ্চিমা তরুণীরা তথাকথতি স্বাধীনতার শেকলে (!) হাঁফিয়ে উঠেছে। তাদরে মধ্যে ইসলাম র্ধম গ্রহণরে হার সবচেয়ে বেশি।Daughter of Another নামক একটি বইয়ে চল্লিশ জন মার্কিন তরুণীর (কথিত নারী স্বাধীনতা পরিহার করে) র্পদার র্ধম ইসলাম গ্রহণরে গল্প তুলে ধরা হয়েছে। তারা সবাই নারী স্বাধীনতার স্বরূপ প্রত্যক্ষ করছেনে। এ স্বাধীনতাকে তারা কৃত্তিম ও প্রপঞ্চ এবং ইসলামরে র্পদা বিধানকে মুক্তি ও সুরক্ষা বলে আখ্যায়িত করছেনে। বৃটেনের সান ডে এক্সপ্রেস পত্রকিার মহলিা সাংবাদকি ইয়্যন রেডলি আফগানিস্তানের তালেবানদের বোরখা নিয়ে বাড়াবাড়ির কঠোর সমালোচক ছিলেন। তিনিই কিন্তু পরবর্তীতে সংবাদ সম্মলেন করে ইসলামের র্পদার ছায়াকে শান্তির ঠিকানা বানিয়ে নেন। নারী স্বাধীনতার নামে যৌন স্বাধীনতার দাবিদার তস্লিমা নাসরিন যে ভারতে আশ্রয় নিয়েছেন সে ভারতে তারই মত খোলামলো লেখালেখির জন্য আলোচিত মালায়লম ও ইংরেজী ভাষার লেখিকিা কমলা দাস এখন ইসলাম গ্রহণ করে র্পদা করছনে। এমন নজির একটি দু’টি নয় অনেক। এদের সবাই সুশক্ষিতা। এরা কেউ আবেগের বশে বা চাপে পড়ে ইসলাম কবুল করেননি নি।

উচ্চাভিলাষী বোন আমার, ইসলা্মের সীমানায় থেকে তুমি সবই করতে পার। যদি পড়তে চাও তবে যত ইচ্ছে পড়তে পার। ব্যবসা, চাকুরি কিংবা যা ইচ্ছে তা-ই করতে পার। শুধু র্পদা লঙ্ঘন করো না। শরিয়তের গণ্ডি অতক্রিম করো না। মনে রখেো, ইসলাম তোমার অগ্রযাত্রায় বাধা নয়। র্পদাও অন্তরায় নয় প্রগতির পথ। ইসলাম চায় তুমি যেখানেই থাক তোমার সতীত্ব, শ্রেষ্ঠত্ব এবং সম্মান রক্ষা হোক। তোমার কোমলতা, সৌর্ন্দয এবং ভদ্রতা বজায় থাকুক। ইসলাম তোমাকে বন্দি করতে ইচ্ছুক নয়। কোনো চরিত্রহীন যেন তোমাকে কলংকিত না করতে পারে,ছলে-বলে কৌশলে তথা কোনোভাবইে তোমাকে অপমানিত না করতে পার এই ইসলামরে অন্বেষা।

চলবে ইনশাআল্লাহ্‌।

Advertisements
This entry was posted in শুধুমাত্র নারীদের জন্য. Bookmark the permalink.

3 Responses to নারীদের প্রতি খোলা চিঠি(পর্ব ১)-আলী হাসান তয়ৈব

  1. yasmin বলেছেন:

    Very important note…..
    good job………………
    JazakAllah khair

  2. Abdullah বলেছেন:

    Porda nishiddho hochche arektu wait koren. ekhon adha nishiddho obosthay ase.

  3. সাকি বলেছেন:

    খুব দরকারি কথা / আল্লাহ্‌ সকল কে হিদায়াত করুন /////আমিন/////

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s